বর্ণবাদ-উমহাদেশ ও ক্রিকেটার পালওয়ানকার

তিনি ছোটবেলা থেকেই তাঁর ভাই শিভরামের সাথে তিনি পুনের একটি ক্লাবে ক্রিকেট খেলতেন ব্রিটিশ সৈনিকদের ফেলে দেয়া সরঞ্জাম দিয়ে । চামারের ছেলে হয়ে রাজার খেলা খেলে দেখানো তখন সাহসের ব্যাপার ছিল বইকী!

বদ্রিনাথ-কোহলি ও চাকরি খোয়ানো ভেংসরকার

উপমহাদেশের ক্রিকেটে স্বজনপ্রীতি নতুন কোনো ব্যাপার নয়। যুগ যুগ ধরে এই ব্যাপারটা চলে এসেছে। আর বিশেষ করে ভারতীয় ক্রিকেটে এর প্রভাব বেশি। সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক দিলীপ ভেংসরকার ২০১৮ সালে মুখ খুলেছিলেন এই স্বজনপ্রীতির প্রসঙ্গে। আর তাতেই বের হয়ে…

কপিল-দাউদ ও সেকালের শারজাহ

শারজার স্টেডিয়ামেও ডনের হাত বেশ ভালই প্রভাব বিস্তার করেছিল। হয়তো সেই উপহার ছিল ভারতীয় ক্রিকেটের অন্দরমহলে প্রবেশের মুখে এক উপঢৌকন। মাঠে প্রায়ই তার সাথে ফিল্মস্টারদেরও দেখা যেত। এর মধ্যে অনিল কাপুর কিংবা ‘রাম তেরি গাঙ্গা ম্যাইলি’ খ্যাত…

একচোখা-একরোখা

‘সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্ম তাঁর’ – এই বাক্যের সবচেয়ে আদর্শ উদাহরণ তিনি। থাকতেন প্রাসাদে, যা নামে ‘পতৌদি প্যালেস’ হিসেবে বিখ্যাত। সেখানে চাকর-বাকরই ১০ জন। শিশু বয়সে তাকে দেখভাল করার জন্যই ছিল সাত কি আটজন।

খবরদার! কেউ উদযাপন করবে না!

ভারত-অস্ট্রেলিয়া দ্বৈরথ অনেক পুরোনো। ভারতীয় অনেক ক্রিকেটার তাঁদের প্রিয় প্রতিপক্ষ হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার নাম নেন, তাদের শক্তিমত্তার জন্য। ২০০৮ সালেও ভারত-অস্ট্রেলিয়া খেলাটি নিয়েও কম উত্তেজনা ছিল না।

ওরা বলছিল, ‘তুমি কারও সাহায্য পাবেনা!’

লর্ডসে এক কিশোরের উত্থান। তারপর পনেরো বছর পেরিয়ে গেছে। আজ মুশফিকুর রহিম টেস্টে বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান। বর্তমানে অন্যতম অভিজ্ঞ উইকেটরক্ষকও বটে।

ক্রিস গেইল, বিতর্কের বিশ্বসেরা রাজা

ক্রিকেটের দানব তিনি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরাদের ছোট তালিকাতেও তাঁর নাম থাকবেই। তিনি হলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের মারকুটে ওপেনার - ক্রিস্টোফর হেনরি গেইল। বিশ্বক্রিকেট দীর্ঘদিন তাঁর ব্যাটিংয়ে বিনোদন পেয়েছে এবং যদিও বোলারদের জন্য তিনি যমসম ছিলেন।

ড্যানিয়েল হ্যারিস: ক্রিকেট ফেরত একজন সুচিকিৎসক

‘ব্যাপারটা টি-টোয়েন্টির সাথেই মানানসই। আপনি ওই ফরম্যাটে তৎক্ষণাৎ সিদ্ধান্তেই প্রথার বাইরে অনেক শট নিবেন, যা স্ট্রাইক রেট বাড়াবে। তেমনই করোনা ভাইরাসের মত অজানা রোগে ওষুধ কাজ না করলে আমাদের দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হয়। এটা চারদিনের ক্রিকেটের মত…