একজন অকীর্তিত নায়ক

ক্রিকেটার হিসেবে কেমন ছিলেন তিনি? মার্টিন ছিলেন একজন শ্রমিক শ্রেণীর ক্রিকেটার, যার হয়তো অসাধারণ প্রতিভা ছিল না, কিন্তু নিজেকে গড়েছেন-ভেঙেছেন এবং নিজের সেরাটা দেওয়ার প্রচেষ্টায় বারবার নিজেকে নিংড়ে দিয়েছেন। তাঁর ধৈর্য্য, টেম্পারপেন্ট, দলের…

জাম্বো এক যোদ্ধার নাম

ভাঙা চোয়াল, শানিত তরবারির ন‍্যায় চকচকে একজোড়া প্রত‍্যয়ী চোখ নিয়ে বোলিং প্রান্ত থেকে ছুটে আসছেন ব‍্যাটসম‍্যানের দিকে। বজ্রকঠিন লম্বা হাত থেকে বেরোলো তীক্ষ্ণ, বিষাক্ত, নিজ লক্ষ্যে অবিচল তীর প্রত‍্যেক বারের মতোইভ ২২ গজে পড়তেই বল নিজের আচরণ…

একালের অতিকায় মূর্তি

যারা ক্রিকেট ভালবাসে, তাঁরা গতির উদ্দামতা নয়, নীরবতার গভীরতা দেখে আনন্দ পায়। তাঁদের জন্য ক্যালিস সবসময় ‘না ভুলতে পারা সৌরভ’ ছড়িয়ে দিয়েছেন যাতে সব সময় মন ভরে সুবাস নেওয়া গেছে। তিনি হলেন আধুনিক ক্রিকেটের অতিকায় মূর্তি, একালের ক্রিকেট…

ঠাণ্ডা মেজাজী ঘাতক

ভাগ্যাক্রমে এই সময় তিনি চোখে পড়ে যান দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি অ্যালান ডোনাল্ডের। শৃঙ্খলাপরায়ন হবার পাঠটা তিনিই দিতে থাকেন, যদিও সমূলে বিনাশ হয়তো করতে পারেননি। কিন্তু তাঁর পরামর্শ, প্রশিক্ষণ ও তদারকিতে পাল্টে যেতে থাকে মরকেলের।

বয়স কেবলই একটা সংখ্যা

অ্যাডাম চার্লস ভোজেস‌‌ - নামটা চেনা চেনা লাগছে কি? লাগবারই কথা কারণ তার সাথে বিখ্যাত, স্বদেশীয় কিংবদন্তী স্যার ডোনাল্ড ব্র্যাডম্যানের নাম জড়িয়ে আছে যে!

জীবন যুদ্ধে পরাজিত এক সৈনিক

অস্ট্রেলিয়া দল ব‍্যাটে নামতেই সেই তরুণ সুইং বোলারের আবার কেরামতি শুরু। আগের দিন যেমন শুরুতেই দলের দুই প্রধান স্তম্ভকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তেমনই আবার সেই দুজনকে ফেরালেন ৩ ওভারের মধ্যেই।আহা! সেই সুইং এখনো চোখে ভেসে আছে।

এমন উচ্চতায় পৌঁছাতে পারবেন ক’জন!

কথায় বলে ‘দান-ধ‍্যান নিজের বাড়ি থেকেই শুরু ক‍রা উচিৎ’। তাই করলেন লালা স‍্যার। নিজের তিন ছেলেকে নিয়ে পড়লেন। বাবার অত‍্যাচারে ক্রিকেট ছাড়াও যে অন‍্য কোনো খেলাও রয়েছে তা ভুলে যেতে বসলেন তিন ভাই।

আলোকিত/কলঙ্কিত জীবন ও মৃত্যু

ছেলেটি চাইলেই পারতো ওই অরাজকতার সময়ে ক্রিকেট ছেড়ে রাগবিকে নিজের পেশা করে তুলতে। কিন্তু পেশা কি কখনও স্বপ্নের থেকে বড়ো হতে পারে যেখানে তার বাবার ইচ্ছে জড়িয়ে আছে, যেখানে গ্রে কলেজের প্রধান শিক্ষককে দেওয়া কথা জড়িয়ে আছে, ‘ক্রিকেটের মক্কা লর্ডসে…

স্পিনের মোচড়ে পাল্টে যাওয়া স্বপ্ন

ঘরোয়া ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করা বাবাই ছেলেটির আদর্শ। বাবার মতোই পেস বোলার হতে চায় সে। উল্টোদিকে ব‍্যাটের হাতটিও অসাধারণ। ওপেনিংয়ে তার জায়গা বাঁধা। ইনিই যে একদিন কুম্বলে-ভাজ্জি পরবর্তী জমানা তথা শেষ দশকে ভারতের সেরা স্পিনার হয়ে উঠবেন তা কি তিনি…