বুকে ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে গাঙ্গুলি

জিম করার সময়ই শরীরটা খারাপ করে তাঁর। তাই উডল্যান্ডস হাসপাতালে যান টেস্ট করাতে। জানা গেছে, তাঁর হার্টে অল্পবিস্তর কিছু সমস্যা আছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তিন সদস্যের এক মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছে যার নেতৃত্বে আছেন ডাক্তার সরোজ মন্ডল।

সকালে নিজের বাড়িতে বসে জিম করছিলেন। তখনই বুকে ব্যাথা অনুভর করেন। তখন এক মুহূর্ত দেরী না করেই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতার উডল্যান্ডস হাসপাতালে। সাথে ছিলেন পরিবারে সদস্যরা।

জানা গেছে বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) সভাপতির হার্টে সমস্যা। ভারতের স্বনামধন্য সাংবাদিক বোরিয়া মজুমদার এক টুইটে লিখেছেন, ‘জিম করার সময়ই শরীরটা খারাপ করে তাঁর। তাই উডল্যান্ডস হাসপাতালে যান টেস্ট করাতে। জানা গেছে, তাঁর হার্টে অল্পবিস্তর কিছু সমস্যা আছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তিন সদস্যের এক মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছে যার নেতৃত্বে আছেন ডাক্তার সরোজ মন্ডল।’

হাসপাতালে আসা মাত্রই ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ককে জরুরী বিভাগে ভর্তি করা হয়। এরপর এনজিওপ্লাস্ট করা হয়েছে। আপাতত ৪৮ বছর বয়সী সৌরভ শঙ্কামুক্ত। তবে, শারীরিক নিরাপত্তার স্বার্থে তাঁকে হাসপাতালে থাকতে হচ্ছে।

হাসপাতালের একজন কর্মকর্তা সৌরভের সার্বিক অবস্থা জানিয়ে বলেন, ‘তিনি এখন ভাল আছেন। আমরা দেখছি বুকের ব্যাথাটা কোনো কার্ডিয়াক সমস্যা নাকি অন্য কিছু। তার কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করানো হবে।’

সৌরভের পরিবারের ঘণিষ্ট একজনও তাঁর ঝুঁকিমুক্ত থাকার খবর নিশ্চিত করেছেন। ভারতীয় বার্তা সংস্থা এএনআইকে তিনি বলেন, ‘দাদা (সৌরভ) বলছিল বুকে ব্যাথা করছে। তাই, তখনই তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সাথে সাথেই ওরা এনজিওপ্লাস্ট করে। এখন ও ঝুঁকিমুক্ত।’

সৌরভের দ্রুত শারীরিক সুস্থতা কামনা করে টুইট করেছেন প্রদেশের মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি লিখেন, ‘আমি তাঁর দ্রুত ও পরিপূর্ণ আরোগ্য লাভের প্রার্থনা করছি। আমি সব সময় সৌরভ গাঙ্গুলি ও তাঁর পরিবারের পাশে আছি।’
সম্প্রতি গাঙ্গুলি দিল্লীর অরুন জেটলি স্টেডিয়াম উদ্বোধন করতে যান। দিনটা ছিল সাবেক অর্থমন্ত্রী ও দিল্লী ও জেল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনৈর সাবেক সভাপতি জেটলির ৬৮ তম জন্মদিন। সেখান থেকে সদ্যই ফিরেছেন।

এর আগে গাঙ্গুলি ছিলেন আহমেদাবাদে। সেখানে গত ২৪ ডিসেম্বর বিসিসিআইয়ের বার্ষিক সাধারণ সভায় অংশ নেয়। বৈঠকে প্রটোকল অনুযায়ী তিনিই ছিলেন সভাপতি। বৈঠকে, ভারতের ক্রিকেটের সাথে সম্পৃক্ত গুরুত্বপূর্ণ কিছু সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে চূড়ান্ত করা হয়।

কলকাতায় ফিরে গত বুধবার তিনি ইডেন গার্ডেন্স পরিদর্শনে যান। আসন্ন সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফির ভেন্যু হিসেবে মাঠটাকে প্রস্তুত করা হচ্ছে। সেখানে তাঁর সাথে ছিলেন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া। আরো ছিলেন সিএবি’র সাধারণ সম্পাদক ও সৌরভের ভাই স্নেহাশীষ গাঙ্গুলি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত দাস।

আরও পড়ুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.