ইতিহাসের জন্ম যেখানে

ইতিহাস গড়তে ভারতের প্রয়োজন ছিলো ৩২৮ রান। ৪র্থ দিন শেষে কোন উইকেট না হারিয়ে ভারতে স্কোরবোর্ডে ছিলো ৪ রান। টেস্টের ৫ম দিনে জয়ের জন্য আরো ৩২৪ রান প্রয়োজন ছিলো ভারতের। টেস্টের ৫ম দিনে তিনশোর বেশী রান স্কোরবোর্ডে তুলে জয়ের রেকর্ড নেই ভারতের। এই ম্যাচে জয় পেতে তাই নতুন করে ইতিহাস লিখতে হতো রাহানেদের।

খেলাধূলাতে জয়ের কাব্যগাথা লিখতে গিয়ে `অবিশ্বাস্য’, `অসাধারণ’, `অভাবনীয়’ বা ‘ঐতিহাসিক’; এমন শব্দ ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

এই শব্দ গুলো ক্রিকেটেও বিভিন্ন সময়ে বসেছে কত শত জয়ের পাশে। কিন্তু আজ এই শব্দগুলোকেও ম্লান মনে হচ্ছে। যেনো বোঝাতে পারছে না ব্যাপারটা। অস্ট্রেলিয়ার সাথে আজ ভারত যা করে দেখিয়েছে সেখানে বড্ড বেমানান লাগছে এই শব্দমালা গুলোও।

ভারতের এই বীরোচিত জয় এমন এক ভেন্যুতে এসেছে যেখানে গত ৩২ বছরে ৩১ টেস্টে হারেনি অস্ট্রেলিয়া। ব্রিজবেন এই ঐতিহাসিক অর্জনের পথে ভারত এমন রেকর্ড গড়ছে, যে রেকর্ড বই গুলো খুঁজতে গিয়ে মোটা ধুলোর আস্তরণ ঝাড়তে হচ্ছে।

ইতিহাস গড়তে ভারতের প্রয়োজন ছিলো ৩২৮ রান। ৪র্থ দিন শেষে কোন উইকেট না হারিয়ে ভারতে স্কোরবোর্ডে ছিলো ৪ রান। টেস্টের ৫ম দিনে জয়ের জন্য আরো ৩২৪ রান প্রয়োজন ছিলো ভারতের। টেস্টের ৫ম দিনে তিনশোর বেশী রান স্কোরবোর্ডে তুলে জয়ের রেকর্ড নেই ভারতের। এই ম্যাচে জয় পেতে তাই নতুন করে ইতিহাস লিখতে হতো রাহানেদের।

শুধু ভারত কেনো; এই শতাব্দীতে টেস্টের ৫ম দিনে তিনশোর বেশী রান করে একটি ম্যাচ জিতেছে শুধু মাত্র ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৫ম দিনে ৩১৭ রান স্কোরবোর্ডে তুলে জয় পেয়েছিলো ক্যারিবিয়ানরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই শতাব্দীর ম্যাচটি বাদ দিলে এমন কীর্তি খুঁজে পেতে পিছনে যেতে হবে আরো ৩৬ বছর।

লর্ডসে সেখানেও দৃশ্যপটে ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ডই। ১৯৮৪ সালে ৫ম দিনে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৪৪ রান স্কোরবোর্ডে তুলে টেস্ট জিতেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর ৫ম দিনে সর্বোচ্চ ৪০৪ রান করে টেস্ট জয়ের রেকর্ড অস্ট্রেলিয়ার। ১৯৪৮ সাল থেকে এই রেকর্ড নিজেদের করে রেখেছে অজিরা।

তবে ৫ম দিনে তিনশোর উপরে রান করে ভারত কখনো জয় না পেলেও ভারতের টেস্ট ইতিহাস বলছে তিনশো রানের বেশী তাড়া করে ভারত জিতেছে মাত্র দুটি ম্যাচে। যার প্রথমটিও সেই ১৯৭৫ সালে। আজ থেকে ৪৫ বছর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৪০৬ রান তাড়া করে জয় পেয়েছিলো ভারত। সর্বশেষ তিন শত রানের বেশী তাড়া করে ভারত জয় পেয়েছে সেটাও প্রায় এক যুগ আগে। চেন্নাইয়ে ৩৮৭ রান তাড়া করে ইংল্যান্ডের সাথে জিতেছিলো মেহেন্দ্র সিং ধোনির দল।

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার সাথে গত এক যুগে তিনশো রান তাড়া করে জেতেনি কোন দল। সর্বশেষ ২০০৮ সালে ৪১৪ রান তাড়া করে জিতেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর আগে ১৯২৮ সালে ৩৩২ রান তাড়া করে জয় পেয়েছিলো ইংল্যান্ড।

সিরিজের প্রথম টেস্ট হারার পরেও ভারত সিরিজ জিতেছে এমন ঘঠনা সর্বশেষ ঘঠেছে ৫ বছর আগে এই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই। ২০১৫ সালেও প্রথম টেস্ট হারার পর শ্রীলংকার সাথে সিরিজ জিতেছিলো ভারত।

আরো একটা তথ্য না দিলেই নয়। ব্রিজবেনের গ্যাবায় অস্ট্রেলিয়া সর্বশেষ টেস্ট হেরেছিলো সেই ১৯৮৯ সালে। গত ৩২ বছরে গ্যাবায় টানা ৩১ টেস্টে জয় পেয়েছে ভারত। টেস্টে কোন নির্দিস্ট ভেন্যুতে টানা জয়ের রেকর্ড পাকিস্তানের। করাচিতে টানা ৩৪ টেস্ট জিতেছিলো পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়া যখন পাকিস্তানের রেকর্ড ভাঙ্গতে আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে ঠিক তখনই পতন হলো অস্ট্রেলিয়ার ব্রিজবেন দুর্গের।

এতো পরিসংখ্যান দেওয়ার পর নিশ্চয় বুঝতে পারছেন ভারত আজ কি করেছে। শেষ দিনে গ্যাবার উইকেটে রোমাঞ্চ ছড়িয়ে ৩২৮ রানের লক্ষ্য পেরিয়ে ইতিহাস গড়া অবিশ্বাস্য এক জয় তুলে নিয়েছে আজিঙ্কা রাহানের দল। ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার দর্প খানখান করে দিয়ে আসতে পেরেছেন এই অনভিজ্ঞ কিন্তু প্রতিভাবান তরুণ ক্রিকেটাররা।

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...