পাকিস্তানের সর্বকালের সেরা ওয়ানডে একাদশ

তাই, পাকিস্তানের সর্বকালের সেরা একাদশ নির্বাচন করা বেশ কঠিন। পাকিস্তানে প্রতিভার কোনো কমতি নেই। হোক সেটা ব্যাটিং কিংবা বোলিং। সব বিভাগেই ইতিহাসের সেরারা আছেন পাকিস্তানে। তাঁদের থেকেই এবার সেরা ১১ জনকে নির্বাচন করা যাক, ওয়ানডে ফরম্যাটের জন্য।

ফরম্যাট যাই হোক – পাকিস্তান ক্রিকেট দলটা বরাবরই আনপ্রেডিক্টেবল। নিজেদের দিনে সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারলে পাকিস্তান দল বিশ্বসেরা, কিন্তু কবে তাঁরা সামর্থ্য অনুযায়ী খেলবে আর কবে ভেঙে পড়বে – সেটা আগে থেকে অনুমান করার সাধ্য কার।

তাই, পাকিস্তানের সর্বকালের সেরা একাদশ নির্বাচন করা বেশ কঠিন। পাকিস্তানে প্রতিভার কোনো কমতি নেই। হোক সেটা ব্যাটিং কিংবা বোলিং। সব বিভাগেই ইতিহাসের সেরারা আছেন পাকিস্তানে। তাঁদের থেকেই এবার সেরা ১১ জনকে নির্বাচন করা যাক, ওয়ানডে ফরম্যাটের জন্য।

  • সাঈদ আনোয়ার

২০ টি সেঞ্চুরি আছে ওয়ানডে, এমন একমাত্র পাকিস্তানি ব্যাটার তিনি। একটা সময়, মানে নব্বইয়ের দশকে শচীন টেন্ডুলকারের সাথে পাল্লা দিয়ে সাঈদ আনোয়ার সেঞ্চুরি করে চলতেন। ইতিহাসের নান্দনিক ব্যাটারদের সংক্ষিপ্ত তালিকাতেও থাকবেন তিনি।

  • শহীদ আফ্রিদি

স্নিগ্ধ নদীর পাশে তুফান। আনোয়ারের পাশে আফ্রিদি। ইতিহাসের অন্যতম কার্যকর পিঞ্চ হিটার। নিজের দিনে আফ্রিদির ব্যাট ভয়ংকর। ওয়ানডেতে পাঁচ হাজার রান আর ৩০০ উইকেট নেওয়া দু’জন খেলোয়াড়ের একজন তিনি। আরেকজন সনাথ জয়সুরিয়া।

  • ইনজামাম উল হক

ওয়ানডেতে ১১ হাজার রান করেছেন, এমন ব্যাটারের সংখ্যা ১০ এর কম। তাঁদেরই একজন, মুলতানের সুলতান খ্যাত ইনজামাম উল হক। অলস এই সৌন্দর্য্যকে ছাড়া পাকিস্তানের একাদশই অসম্পূর্ণ।

  • মোহাম্মদ ইউসুফ 

প্রায় ১০ হাজার ছুঁইছুঁই রান। ৪০-এর ওপর গড়। প্রায় ৬০ টি ক্যাচ। সব মিলিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে মোহাম্মদ ইউসুফ আকা ইউসুফ ইয়োহানা ছিলেন বেশ কার্যকর।

  • জাভেদ মিয়াঁদাদ

পাকিস্তানের হয়ে সবচেয়ে বেশি বিশ্বকাপ খেলেছেন। বিশ্বকাপে পাকিস্তানি ব্যাটারদের মধ্যে করেছেন সবচেয়ে বেশি রান (১০৮৩)। দেশের হয়ে জিতেছেন বিশ্বকাপ। বড়ে মিয়াঁ খ্যাত জাভেদ মিয়াঁদাদ এই একাদশে থাকতে বাধ্য।

  • ইমরান খান (অধিনায়ক)

মাত্র পাঁচ জন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার ওয়ানডেতে ১৫০-এর ওপর উইকেট আর এক হাজারের ওপর রান করেছেন। তাঁদের মধ্যে সেরা নি:সন্দেহে ইমরান খান। ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপের ট্রফি হাতে নেওয়া ইমরানকে সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়কও বলেন কেউ কেউ।

  • মঈন খান (উইকেটরক্ষক)

পাকিস্তানের হয়ে ওয়ানডেতে তিন হাজারের ওপর রান করা একমাত্র উইকেটরক্ষক ব্যাটার তিনি। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে উইকেটের পেছনে ধূর্ততা দেখানোর সাথে সাথে বেশ কিছু ম্যাচ জেতানো ইনিংস আছে তাঁর। ৩০০’র বেশি ডিসমিসাল আছে তাঁর নামের পাশে।

  • ওয়াসিম আকরাম

সর্বকালের সেরা বাঁ-হাতি পেসার ওয়াসিম আকরাম। মুত্তিয়া মুরালিধরণ বাদে একমাত্র এই ওয়াসিম আকরামই ওয়ানডেতে ৫০০’র বেশি উইকেট নিয়েছেন। তিনি রিভার্স স্যুইংকে নিয়ে গিয়েছিলেন শিল্পের পর্যায়ে।

  • সাকলায়েন মুশতাক

বয়স ৩০ হওয়ার আগেই তাঁর আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গিয়েছে। স্বল্প সময়ের ক্যারিয়ারে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে নেন ২৮৮ টি উইকেট। গড় মাত্র ২১.৮। ২৫০-এর বেশি উইকেট পাওয়া ওয়ানডে বোলারের মধ্যে বোলিং গড়ে তিনিই আছেন সবার ওপরে।

  • ওয়াকার ইউনুস 

৪০০’র ওপর উইকেট নিয়েছেন ওয়ানডেতে। তিনিই ওয়ানডের একমাত্র বোলার যিনি ২৭ বার ৫০ ওভারের ক্রিকেটে ৪ কিংবা তাঁর বেশি সংখ্যক উইকেট নিয়েছেন। যোগ্যতার পুরোটা ব্যবহার করতে পারলে নি:সন্দেহে তাঁর উইকেটসংখ্যা আরো বাড়তো।

  • শোয়েব আখতার

২০০’র বেশি ওয়ানডে উইকেট নেওয়া ছয় পাকিস্তানি বোলারের একজন হলেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস খ্যাত শোয়েব আখতার। তবে, বিতর্কিত এই চরিত্রের মূল দক্ষতা হল গতি আর আগ্রাসন। নিজের দিতে অবশ্যই তিনি বিশ্বসেরা স্পিডস্টার।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...