রাজস্থানের মসনদে পাঞ্জাবের হানা

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ওপেনারদের শ্রেষ্ঠত্ব চলছেই। এবার সেই শ্রেষ্ঠত্ব দেখিয়েই রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ৫ রানের জয় তুলে নিল পাঞ্জাব কিংস।  

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ওপেনারদের শ্রেষ্ঠত্ব চলছেই। এবার সেই শ্রেষ্ঠত্ব দেখিয়েই রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ৫ রানের জয় তুলে নিল পাঞ্জাব কিংস।

টসে জিতে এ দিন শুরুতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রাজস্থানের অধিনায়ক জশ বাটলার। তবে অধিনায়কের সে সিদ্ধান্তের যথাযথ প্রতিদান দিতে পারেননি বোলাররা। শুরুতেই পাঞ্জাব কিংসের দুই ওপেনার প্রাভসিমরান সিং আর শিখর ধাওয়ানের ব্যাটিং তোপের মুখে পড়েন ট্রেন্ট বোল্টরা।

এ দুই ওপেনারের জুটি থেকে আসে ৯০ রান। আর এর মাঝেই আইপিএল ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধ-শতক তুলে নেন প্রাভসিমরান সিং। ৭ চার আর ৩ ছক্কায় এ ওপেনার ৩৪ বলে তাঁর ইনিংস সাজান ৬০ রানের।

জেসন হোল্ডারের বলে প্রাভসিমরান সাজঘরে ফিরে যাওয়ার পর ফিফটি তুলে নেন শিখর ধাওয়ানও। আগের ম্যাচে ৪০ রানে থামলেও শিখর ধাওয়ান এ ম্যাচে ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। ফিফটি পূরণ করার পর এ ব্যাটার ইনিংস শেষ করেছেন ৮৬ রানে অপরাজিত থেকে।

প্রাভসিমরান সিংয়ের ৬০ আর শিখর ধাওয়ানের ৮৬ — মূলত এ দুই ওপেনারের সৌজন্যেই বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে যায় পাঞ্জাব কিংস। ইনিংসের মাঝপথে জিতেশ শর্মার ২৭ রানের দ্রুতগতির ইনিংসে ২০০ এর পথে পা বাড়িয়েছিল পাঞ্জাব। তবে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৯৭ রানেই ইনিংস শেষ হয় পাঞ্জাবের।

১৯৮ রানে বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় রাজস্থান রয়্যালস। পাঞ্জাবের দুই ওপেনারের উজ্জ্বল থাকার দিনে মোক্ষম জবাব দিতে পারেননি রাজস্থানের দুই ওপেনার জেসওয়াল আর আশ্বিন। ভিন্ন ভাবনায় আশ্বিনকে এ দিন ইনিংসের শুরুতে নামানোর সিদ্ধান্তে বরং বুমেরাংই হয়েছে রাজস্থানের জন্য। শূন্য রানে ফেরেন এ ব্যাটার।

অবশ্য দুই ওপেনার দ্রুত ফিরে গেলেও বাটলার আর সাঞ্জু স্যামসনের পাল্টা আক্রমণে ম্যাচটা জমেই উঠেছিল বেশ। কিন্তু সেই রেশ আর ধরে রাখতে পারেননি বাটলার। একবার জীবন পেয়েও ব্যক্তিগত ১৯ রানে এ ব্যাটার নাথান ইলিসের বলে আউট হয়ে ফিরে যান।

বাটলার ফিরে গেলেও ম্যাচটা ধরে রেখেছিলেন সাঞ্জু স্যামসন। কিন্তু তিনিও ধরা দেন কিছুক্ষণ বাদেই। ব্যক্তিগত ৪২ রানে এ ব্যাটার ফিরে গেলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে রাজস্থান। তবে শেষ দিকে এসে ম্যাচটা প্রায় ঘুরিয়েই দিয়েছিলেন ইম্প্যাক্ট প্লেয়ার হিসেবে নামা ধ্রুভ জুরেল আর শিমরন হেটমায়ার।

তবে শেষ পর্যন্ত জুরেলের ১৫ বলে ঝড়ো ৩২ আর হেটমায়ারের ৩৬ রানের ইনিংসও পরাজয় এড়াতে পারেনি রাজস্থান রয়্যালসের। শেষ ওভারে ১৬ রানের সমীকরণে রাজস্থানের এ দুই ব্যাটারকে রুখে দেন এবারের আইপিএলের সবচেয়ে দামী ক্রিকেটার স্যাম কারেন। নির্ধারিত ২০ ওভারে লক্ষ্য থেকে ৬ রান দূরে থেমে যায় রাজস্থানের ইনিংস। পাঞ্জাব কিংসের হয়ে ৩০ রান খরচায় নাথান এলিস একাই নেন ৪ উইকেট।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...