দারুণ খুশি তামিম

`এটা আমাদের জন্য দুর্দান্ত। পুরো টিম যে ভাবে পারফর্ম করতে উন্মুখ ছিলো সেটা আশ্চর্যজনক। ১০ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে সবাই যে চেস্টা করেছে সেটাও আশ্চর্যজনক ছিলো। বিরতীতে সবাই প্রচুর পরিশ্রম করেছে। আমরা ভাগ্যক্রমে দুটি ঘরোয়া টুর্নামেন্ট পেয়েছিলাম যা আমাদের সাহায্য করেছে।'

সিরিজের শেষ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১২০ রানে হারিয়ে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ। এটি বাংলাদেশের ২৬তম ওয়ানডে সিরিজ জয় এবং এই নিয়ে প্রতিপক্ষকে ১৪ বার হোয়াটওয়াশ করলো বাংলাদেশ।

দীর্ঘ দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে এমন সিরিজ জয়কে অধিনায়ক তামিম ইকবাল বলেছেন দুর্দান্ত। তামিম ম্যাচ শেষে বলেন তাদের এমন পারফর্ম করতে সাহায্য করেছে দুটি ঘরোয়া টুর্নামেন্ট।

তামিম বলেন, `এটা আমাদের জন্য দুর্দান্ত। পুরো টিম যে ভাবে পারফর্ম করতে উন্মুখ ছিলো সেটা আশ্চর্যজনক। ১০ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে সবাই যে চেস্টা করেছে সেটাও আশ্চর্যজনক ছিলো। বিরতীতে সবাই প্রচুর পরিশ্রম করেছে। আমরা ভাগ্যক্রমে দুটি ঘরোয়া টুর্নামেন্ট পেয়েছিলাম যা আমাদের সাহায্য করেছে।’

পুরো সিরিজেই জৈব সুরক্ষা বায়ো বাবলে ছিলো ক্রিকেটাররা। এর আগে ঘরোয়া টুর্নামেন্ট দুটিতেও বায়ো বাবলে থাকতে হয়েছে তাদের। তামিম জানিয়েছেন বায়ো বাবলের জীবন কঠিন হলেও পারফর্ম করতে অসুবিধা হয়নি তাদের। বরং সবার পারফর্মে খুশি ছিলেন অধিনায়ক।

বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেন, `জৈব সুরক্ষা বায়ো বাবলের জীবন দুর্দান্ত নয় তবে মহামারী ও বিশ্ব যে ভাবে চলছে তাতে এটিকে আমাদের মোকাবেলা করতে হবে। আমরা পরিবারের সাথে রয়েছি কিন্তু দেখা করতে পারিনা। আমাদের পারফর্মে আমি ৮৫% খুশি ছিলাম। এখনও উন্নতির সুযোগ রয়েছে। একটা সময় ছিলো আমাদের পেস বোলারদের সন্ধান করতে হতো। তবে এখন পেসারদের স্ব্যাস্থ্যকর প্রতিযোগিতা চলছে।’

সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচেই প্রথমে ব্যাট করে অসহায় আত্নসমর্পণ করেছিলো ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা। ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভালো ভাবে ব্যাট করার সুযোগ হয়নি মুশফিকুর রহিমের। প্রথম ম্যাচে ১৯ ও দ্বিতীয় ম্যাচে ৯ রানে অপরাজিত থাকার পর আজ সুযোগ পেয়েই ৫৫ বলে ৬৪ রান করে হয়েছেন ম্যাচ সেরা। রান করতে পেরে খুশি মুশফিক জানিয়েছেন প্রত্যাবর্তনটা ভালো ছিলো।

মুশফিক বলেন, `দলের প্রয়োজনে রান করে ভালোই লাগে। প্রথম দুই ম্যাচে বোলারদের কৃতিত্বে আমি ব্যাট করার খুব একটা সুযোগ পাইনি। আজ আমি সুযোগ পেয়েছি এবং ভালো করেছি তবে আরো ভালো করতে পারতাম। আমরা সবাই ১০/১২ মাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মিস করেছি। প্রত্যাবর্তন ভালো ছিলো।’

ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সহজে হারালেও ভিন্ন ফরম্যাট টেস্টে নতুন শুরু দরকার বলে মনে করেন মুশফিকুর রহিম। তিনি বলেন, টেস্ট ভিন্ন বলের হবে। তাদের টেস্ট স্কোয়াডে আরও অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। আমাদের ভালো প্রস্তুতি নেওয়া ও নতুন করে শুরু করা দরকার। সবাই পারফর্ম করার জন্য উন্মুখ এবং এটি ভালো লক্ষণ।

সিরিজ হারার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন মোহাম্মাদ জানিয়েছেন ব্যাটিংয়ের কারণেই এমন ভরাডুবি হয়েছে তাদের। দলের প্রথম সারির ক্রিকেটাররা ফিরে এলে তবেই মিলবে সমাধান। তবে হারলেও ইতিবাচক দিক হিসাবে আকিল হোসেন ও জোসেফের পারফর্মকে সামনে এনেছেন তিনি।

ম্যাচ শেষে ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক বলেন, `তিনটি খেলায় আমরা ভালো পারফর্ম থেকে দূরে ছিলাম। বোলিং ঠিক আছে। আজ সম্ভবত ৩০ রান বেশী হয়েছে। ব্যাটিং মোটেই ভালো ছিলো না। স্পিনারদের খেলা আমাদের জন্য সত্যিই চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে প্রথম দুটি খেলায়। এটি এমন যে আমাদের পূর্ণ শক্তির ব্যাটিং লাইনআপের সাথে সংশোধন করা যায়। সবাই ফিরে এলে আমরা আরও ভালো করবো। ইতিবাচক দিক হলো আলজারি ভালো করেছে। উইকেট কম পেতে পারে তবে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ভালো করেছে। আর অভিষেকে আকিলও ভালো করেছে।’

আরও পড়ুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.