ছক্কার অতিমানবনামা

যদি পেশি শক্তির জোরেই ছক্কা মারা যেত, তাহলে এই সর্বোচ্চ ছক্কা মারা তালিকায় সবার আগে থাকতো পেসাররা। কারণ পেস বোলারদের পেশি শক্তির প্রয়োজন হয় সবচেয়ে বেশি। যা হোক, ক্রিকেট মাঠে ছক্কার গুরুত্বটা বেশ প্রয়োজনীয়।

ক্রিকেট মাঠে খুব নিয়মিতই ছক্কা দেখা যায়। টি-টোয়েন্টির কল্যাণে এই সংখ্যাটা বেশ বেড়ে গেছে আধুনিক ক্রিকেটে। অনেকেই ভাবেন ক্রিকেটে ছক্কা মারাটা পেশি শক্তির জোরে হয়। না, সব ছক্কা শুধু পেশি শক্তির জোরে হয় না। ক্রিকেটীয় দক্ষতারও প্রয়োজন আছে ছক্কা মারার জন্য।

যদি পেশি শক্তির জোরেই ছক্কা মারা যেত, তাহলে এই সর্বোচ্চ ছক্কা মারা তালিকায় সবার আগে থাকতো পেসাররা। কারণ পেস বোলারদের পেশি শক্তির প্রয়োজন হয় সবচেয়ে বেশি। যা হোক, ক্রিকেট মাঠে ছক্কার গুরুত্বটা বেশ প্রয়োজনীয়। কারণ এক ছক্কাই খেলার ফলাফলে বেশ প্রভাব পড়ে। বোলারদের আত্মবিশ্বাস নষ্ট করার জন্য একটি ছক্কাই যথেষ্ট।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যেসব ক্রিকেটাররা সবচেয়ে বেশি ছক্কা মেরেছেন সেই শীর্ষ পাঁচ ক্রিকেটারের তালিকা নিয়ে খেলা ৭১ এর আজকের এই আয়োজন।

  • ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)

বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে অন্যতম মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। সারা বিশ্ব জুড়ে তার পরিচিতি ‘ইউনিভার্স বস’ নামে। বিশ্বের সব ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটে দেখা যায় তাকে।

ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটে সময় দেয়ার কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন আর বেশি দেখা যায় না তাকে। এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা না গেলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছক্কা হাকানোর রেকর্ড তাঁর।

এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলেছেন ৪৬৫ ম্যাচ। এই ৪৬৫ ম্যাচে হাকিয়েছেন ৫৩৫ টি ছক্কা।

  • শহীদ আফ্রিদি (পাকিস্তান)

শহীদ আফ্রিদির পরিচিতি ‘বুম বুম আফ্রিদি’ নামে। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই মারকূটে ব্যাটসম্যান ছিলেন তিনি। আফ্রিদি মূলত একজন অল রাউন্ডার। মারকুটে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি তিনি বল হাতেও ছিলেন কার্যকর।

২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নিয়েছেন তিনি। এখনো বিশ্বের বিভিন্ন ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগে খেলে যাচ্ছেন তিনি। আফ্রিদি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলেছেন ৫২৪ ম্যাচ। এই ৫২৪ ম্যাচে হাকিয়েছেন ৪৭৬ ছক্কা।

  • রোহিত শর্মা (ভারত)

বর্তমান বিশ্বের যেকোনো বোলারের কাছে ভয়ংকর একজন ব্যাটসম্যান হলেন রোহিত শর্মা। ওয়ানডে ক্রিকেটে একমাত্র রোহিত শর্মা তিনটি দ্বিশতক হাকিয়েছেন। নিজের দিনে যেকোনো বোলারের জন্য ত্রাসে পরিণত হতে পারেন তিনি।

ভারতীয় দলের হয়ে সব সংস্করণে ওপেনিং করছেন তিনি। রোহিত শর্মার ক্যারিয়ারের শুরু দিকে ছিলেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তখন এতো ভয়ংকর ছিলেন। ওপেনিং পজিশনে আসার পর থেকে পরিণত হয়েছেন বোলারদের ত্রাসে।

এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলেছেন ৩৭৬ ম্যাচ। এই ৩৭৬ ম্যাচে হাকিয়েছেন ৪৩৬ ছক্কা।

  • ব্রেন্ডন ম্যাককলাম (নিউজিল্যান্ড)

নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম মারকুটে ব্যাটসম্যান ছিলেন ব্রেন্ডন ম্যাককলাম। তিনি একাই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া জন্য যথেষ্ট ছিলেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় দিয়ে এখন কোচিং পেশায় নাম লিখিয়েছেন ম্যাককলাম। তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন ২০১৬। ২০০২ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর খেলেছেন ৪৩২ ম্যাচ। এই সময়ের মধ্যে তিনি হাঁকিয়েছেন ৩৯৮ টি ছক্কা।

  • মহেন্দ্র সিং ধোনি (ভারত)

ভারতের ক্রিকেটের অন্যতম সেরা অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। তাকে ডাকা হত ‘মি.কুল’ বলে। এই নাম দেওয়া হয়েছিলো তাঁর ঠান্ডা মাথার অধিনায়কত্বের জন্য।

এই উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান ব্যাটিংয়েও কম ছিলেন না। দলের প্রয়োজনে যেকোনো ভাবে ব্যাটিং করতে পারতেন তিনি। কিন্তু তাঁর সহজাত ব্যাটিং ছিলো মারকুটে ব্যাটিং।

ধোনি একমাত্র অধিনায়ক যিনি কিনা আইসিসির সব ট্রফি জিতেছেন। তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলেছেন ৫৩৮ ম্যাচ। এই সময়ের মধ্যে তিনি ছক্কা হাকিয়েছেন ৩৫৯ টি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...