সাদায় হ্যাটট্রিকের দশকাহন

টেস্ট ক্রিকেট মানেই মর্যাদার লড়াই। পাঁচ দিনের লড়াইয়ে ক্ষণে ক্ষণে রঙ বদলানো আর রেকর্ডের ছড়াছড়ি। টেস্ট ইতিহাসে এখন অবধি হ্যাটট্রিক করেছেন মোট ৪৫ ক্রিকেটার। আশির দশকের পর হিসেব করলে সংখ্যাটা হয়তো ২৫-৩০ এর মাঝামাঝি হবে। সাদা পোশাকে গেলো পাঁচ দশকে অনেক বোলারই হ্যাটট্রিক করে নিজের নাম লিখিয়েছেন রেকর্ড বইয়ে।

টেস্ট ক্রিকেট মানেই মর্যাদার লড়াই। পাঁচ দিনের লড়াইয়ে ক্ষণে ক্ষণে রঙ বদলানো আর রেকর্ডের ছড়াছড়ি। টেস্ট ইতিহাসে এখন অবধি হ্যাটট্রিক করেছেন মোট ৪৫ ক্রিকেটার। আশির দশকের পর হিসেব করলে সংখ্যাটা হয়তো ২৫-৩০ এর মাঝামাঝি হবে। সাদা পোশাকে গেলো পাঁচ দশকে অনেক বোলারই হ্যাটট্রিক করে নিজের নাম লিখিয়েছেন রেকর্ড বইয়ে।

সেই অসংখ্য হ্যাটট্রিকের তালিকা থেকেই সেরা দশটা নিয়ে আলাদা করে বলা খুব কঠিন। তবে, কিছু হ্যাটট্রিক আসলেই আছে, যারা গুরুত্বের বিচারে বাকিদের চেয়ে বেশ এগিয়ে। সেসব কিংবদন্তিতুল্য হ্যাটট্রিক নিয়েই আজকের আলোচন।

  • ইরফান পাঠান – প্রতিপক্ষ পাকিস্তান, ২০০৬

২০০৬ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে করাচি টেস্টের প্রথম ইনিংসে টানা তিন বলে তিন উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে টেস্ট হ্যাটট্রিক করেন ইরফান পাঠান।

প্রথম বোলার হিসেবে টেস্টের প্রথম তিন বলেই হ্যাটট্রিকের কীর্তি গড়েন ইরফান! সালমান বাট, ইউনিস খান ও মোহাম্মদ ইউসুফকে দুর্দান্ত ডেলিভারিতে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন এই পেসার।

  • কোর্টনি ওয়ালশ – প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া, ১৯৮৮

১৯৮৮ সালে ব্রিসবেন টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার শেষ উইকেট টনি ডডমাইডেকে শিকার করেন ওয়ালশ। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে বল করতে নেমে নিজের প্রথম দুই বলেই মাইক ভ্যালেটা ও গ্রায়েম উডকে ফিরিয়ে হ্যাট্রিক পূর্ণ করেন এই ক্যারিবিয়ান পেসার।

টানা তিন বলে তিন উইকেট না নিয়ে টেস্ট ইতিহাসে এটিই ছিল প্রথম হ্যাটট্রিক! এর আগে টেস্টে ১৭ বার হ্যাট্রিক হলেও সবগুলোই ছিলো সোজাসাপটা টানা তিন বলে তিন উইকেট। ওই টেস্টে নয় উইকেটের বড় জয় পায় ক্যারিবীয়রা।

  • মার্ভ হিউজ – প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ১৯৯২

১৯৮৮ সালের ওই সিরিজে ব্রিসবেন টেস্টে ওয়ালশের অদ্ভুত হ্যাটট্রিকের পর দ্বিতীয় টেস্টে পার্থে এর চেয়েও অদ্ভুত হ্যাট্রিক শিকার করেন অস্ট্রেলিয়ান পেসার মার্ভ হিউজ। এক ওভারের শেষ বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটার কার্টলি অ্যামব্রোসকে ফেরান তিনি।

এরপর নিজের পরের ওভারের প্রথম বলে প্যাট্রিক প্যাটারসনকে আউট করে শিকার করেন নিজের টানা দ্বিতীয় উইকেট! প্রথম ইনিংসে ক্যারিবীয়রাও অলআউট। পরের ইনিংসে প্রথম ওভার করতে এসেই প্রথম বলে ক্যারিবীয় ওপেনার গর্ডন গ্রিনিজকে ফিরিয়ে অদ্ভুত হ্যাটট্রিক পূরণ করেন মার্ভ হিউজ!

যদিও ওই ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জয় পায় ১৬৯ রানের বিশাল ব্যবধানে। যদিও, হ্যাটট্রিক নয়, মার্ভ হিউজ বিখ্যাত ছিলেন তাঁর বিচিত্র গোঁফ ও আরো বিচিত্র সব স্লেজিংয়ের কারণে।

  • নাসিম শাহ – প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ, ২০১৬

২০১৬ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে ফিরিয়ে ঘরের মাঠে মাত্র ১৬ বছর বয়সে টেস্ট হ্যাটট্রিক তুলে নেন তরুন পাকিস্তানি পেসার নাসিম শাহ। টেস্টের মত ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সবচেয়ে কম বয়সে হ্যাটট্রিকের নজীরও পাকিস্তানিদের দখলে। ওয়ানডেতে এই রেকর্ড আকিব জাভেদের। আর টি-টোয়েন্টিতে মোহাম্মদ হাসনাইনের।

  • পিটার সিডল – প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড, ২০১০

অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম টেস্টে ব্রিসবেনে মুখোমুখি অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। ইতিমধ্যেই নিজের ঝুলিতে দুই উইকেট পুরে ফেলেছেন সিডল। পঞ্চম উইকেটে ইয়ান বেলের সাথে ততক্ষণে ভীত গড়ে ফেলেছেন অ্যালিস্টেয়ার কুক। বল করছিলেন সিডল।

এক ওভারে পর পর তিন বলে তুলে নিলেন কুক, ম্যাট প্রায়র আর স্টুয়ার্ট ব্রডকে! ১১তম অস্ট্রেলিয়ান হিসেবে টেস্ট ইতিহাসে গড়লেন হ্যাট্রিকের রেকর্ড। শুধু তাই নয় জন্মদিনে প্রথম কোনো বোলার হিসেবে হ্যাট্রিকের অনন্য এক কীর্তি গড়েন সিডল! হ্যাট্রিকের সাথে সাথে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ‘ফাইফার’ তুলে নেন তিনি।

৫৪ রানে ৬ উইকেট শিকার করে নিজের জন্মদিনটা স্মরণীয় করে রেখেছিলেন সিডল। জন্মদিনে অনন্য এক কীর্তিতে নামের পাশে যোগ করেছিলেন ‘বার্থডে হ্যাটট্রিক’।

  • হরভজন সিং – প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া, ২০০১

কলকাতায় দ্বিতীয় টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে রিকি পন্টিং, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট ও শেন ওয়ার্নকে টানা তিন বলে ফিরিয়ে ভারতের হয়ে টেস্টে প্রথম হ্যাটট্রিক শিকার করেন স্পিনার হরভজন সিং।

  • গ্লেন ম্যাকগ্রা – প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ২০০০

২০০০ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পার্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসে প্রথম দিনে ব্যাট করতে নেমে ম্যাগ্রার হ্যাটট্রিকে মাত্র ২২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে মুখ থুবড়ে পড়ে ক্যারিবীয়রা। শারউইন ক্যাম্পবেল, ব্রায়ান লারা ও জিমি অ্যাডামসকে ফিরিয়ে অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ম্যাগ্রা।

  • ড্যারেন গফ – প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া, ১৯৯৯

১৯৯৯ সালে অ্যাশেজের শেষ টেস্টে সিডনিতে ইয়ান হিলি, স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল ও কলিন মুলারকে আউট করে হ্যাটট্রিক উইকেট শিকার করেন ইংলিশ তারকা ড্যারেন গফ।

  • স্টুয়ার্ট ব্রড – প্রতিপক্ষ ভারত, ২০১২

২০১২ সালে ভারতের বিপক্ষে ট্রেন্ট ব্রিজে দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক করেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। যুবরাজ সিং, মহেন্দ্র সিং ধোনি ও হরভজন সিং’কে ফিরিয়ে অসাধারণ এক হ্যাটট্রিক করে ইংলিশদের ম্যাচে ফেরান এই তারকা পেসার।

  • শেন ওয়ার্ন – প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড, ১৯৯৪

১৯৯৪ সালের অ্যাশেজে ইংলিশদের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে ফিল ডিফ্রেইটাস, ড্যারেন গফ ও ডেভন ম্যালকমকে আউট করে হ্যাটট্রিকের দেখা পান অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি তারকা স্পিনার শেন ওয়ার্ন!

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...