সৌরভে সুরভিত সাগরিকা

১০ সেঞ্চুরির সাত টিই মমিনুল করেছেন চট্টগ্রামে; বাকি তিন টি ঢাকার মিরপুর শেরে বাংলায়। মানে মুমিনুল তাঁর প্রতিটা সেঞ্চুরিই করেছেন দেশের মাটিতে। এবার অপেক্ষা বিদেশের মাটিতে সেঞ্চুরি। সেটা হলেই মুমিনুল ক্যারিয়ার হাঁটবে পূর্ণতার পথে।

গত ফেব্রুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে তামিম ইকবালকে ছুঁয়ে ছিলেন মমিনুল হক সৌরভ। করোনা ভাইরাস জনিত বিপর্যয়ে এক বছর বিরতি দিয়ে টেস্টে ফিরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে তামিম ইকবালকে ছাড়িয়ে গেলেন মমিনুল হক সৌরভ।

চট্টগ্রামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে চতুর্থ দিনের দ্বিতীয় সেশনে ১৭৩ বলে ৯ টি চারের সাহায্যে নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের দশম সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসাবে টেস্ট সেঞ্চুরির সংখ্যাকে দুই অংকে রূপ দিয়েছেন মমিনুল হক।

টেস্টে তামিমের সেঞ্চুরি নয় টি, মুশফিকুর রহিমের সাত টি ও সাকিব আল হাসানের পাঁচ টি। ১০ টি সেঞ্চুরি করতে মমিনুলকে খেলতে হয়েছে মাত্র ৪১ টেস্ট; যা তামিমের থেকে ২০ টেস্ট কম।

দেশের হয়ে সর্বোচ টেস্ট সেঞ্চুরির মালিক হলেও মমিনুলের আক্ষেপ থেকে যাবে এখনো দেশের বাইরে কোন সেঞ্চুরি করতে পারেননি তিনি। ১০ টি সেঞ্চুরির সব গুলোই করেছেন ঘরের মাঠে। আরো নির্দিস্ট করে বললে চট্টগ্রামে। ১০ সেঞ্চুরির সাত টিই মমিনুল করেছেন চট্টগ্রামে; বাকি তিন টি ঢাকার মিরপুর শেরে বাংলায়।

মানে মুমিনুল তাঁর প্রতিটা সেঞ্চুরিই করেছেন দেশের মাটিতে। এবার অপেক্ষা বিদেশের মাটিতে সেঞ্চুরি। সেটা হলেই মুমিনুল ক্যারিয়ার হাঁটবে পূর্ণতার পথে।

মুমিনুল কেবল সেঞ্চুরির পাহাড়েই উঠেননি, আরেকটা অর্জন করে নিয়েছেন নিজের।আজ টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে তিন হাজার রানের এলিট ক্লাবেও প্রবেশ করেছেন মমিনুল হক। ম্যাচ শুরুর আগে ৩ হাজার রান থেকে ১৪০ রান দূরে ছিলেন মমিনুল। প্রথম ইনিংসে ২৬ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮২ বলে ১১৫ রান করার পর মমিনুলের টেস্টে রান এখন ৩০০১।

 

এর আগে টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে তিন হাজারের বেশি রান করেছেন মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। ৪৪৬৯ রান নিয়ে শীর্ষে রয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ৪৪১৪ রান নিয়ে পরের অবস্থানে তামিম ইকবাল। তৃতীয় স্থানে থাকা সাকিবের রান ৩৯২৮।

মুমিনুল হকের দশ টেস্ট সেঞ্চুরি

  • ১৮১ – প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০১৩,
  • ১২৬* – প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড, শেরে-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ২০১৩,
  • ১০০* – প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০১৪,
  • ১৩১* – প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০১৪,
  • ১৭৬ – প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০১৮,
  • ১০৫ – প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০১৮,
  • ১৬১ – প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে, শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ২০১৮,
  • ১২০ – প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০১৮,
  • ১৩২ – প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে, শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ২০২০,
  • ১১৫ – প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, ২০২১।

আরও পড়ুন

Leave A Reply

Your email address will not be published.