ওয়ার্নারকে ১২ লাখ আর বিরাটকে কেন ২৪ লাখ?

এইতো কদিন আগেই বিরাট কোহলিকে ২৪ লক্ষ রুপি জরিমানা করেছে আইপিএল গভার্নিং কাউন্সিল। কিন্তু বিরাট কোহলির মত একই দোষে দুষ্ট ডেভিড ওয়ার্নারকে কেন ১২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হলো। এই দুই অধিনায়ককে দুই রকম অর্থ জরিমানা করার পেছনে অবশ্য কারণও আছে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ওভাররেট নিয়ে কড়াকড়ি চলছে বেশ আগে থেকেই। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এ ক্ষেত্রে আরো একধাপ এগিয়ে। এইতো কদিন আগেই বিরাট কোহলিকে ২৪ লক্ষ রুপি জরিমানা করেছে আইপিএল গভার্নিং কাউন্সিল। কিন্তু বিরাট কোহলির মত একই দোষে দুষ্ট ডেভিড ওয়ার্নারকে কেন ১২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হলো। এই দুই অধিনায়ককে দুই রকম অর্থ জরিমানা করার পেছনে অবশ্য কারণও আছে।

আইপিএলের নিয়ম অনুসারে প্রতিটি ফিল্ডিং দলকেই ৯০ মিনিটের মধ্যে ইনিংস সম্পন্ন করতে হবে। ইনিংসের দুটি স্ট্র্যাটেজিক টাইম আউটও সেই ৯০ মিনিটের মধ্যেই গণনা করা হবে। তবে ইনিংসের মধ্যে কোনো খেলোয়াড় ইনজুরি আক্রান্ত হয়ে সেখানে সময় ক্ষেপন হলে কিংবা ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের (ডিআরএস) কারণে কাল ক্ষেপন হলে সেটিও এই ৯০ মিনিটের মধ্যে সংযুক্ত হবে না।

কোনো দলের অধিনায়ক ৯০ মিনিটে ইনিংস সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে তাকে ১২ লক্ষ রুপি জরিমানা করা হবে। এক্ষেত্রে দলের অন্য কাউকে কোনো জরিমানা দিতে হবে না। লখনৌ সুপার জায়ান্টসের বিপক্ষে ম্যাচে স্লো ওভার রেটের কারণে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ক হিসেবে এক্ষেত্রে ১২ লক্ষ রুপি জরিমানা করা হয় ফাফ ডু প্লেসিসকে।

নিয়মের আরেকটি ধারা হলো কোনো দল একই আসরে দুইবার এই অপরাধ করলে সেই দলের অধিনায়ককে ২৪ লক্ষ রুপি জরিমানা করা হবে। এক্ষেত্রে ইমপ্যাক্ট সাবস্টিটিউট সহ দলের অন্যান্য খেলোয়াড়দের ৬ লক্ষ রুপি অথবা ম্যাচ ফির ২৫% জরিমানা করা হবে।

রাজস্থান রয়েলসের বিপক্ষে ম্যাচে ফাফ ডু প্লে সিসের ইনজুরির কারণে ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিরাট কোহলি। সেই ম্যাচে টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় বারের মত স্লো ওভার রেটের কারণে জরিমানা করা হয় ব্যাঙ্গালুরুকে। আর দ্বিতীয়বার একই ঘটনা ঘটানোয় ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলিকে ২৪ লক্ষ রুপি জরিমানা করা হয়। এক্ষেত্রে ব্যক্তি বিরাটকে জরিমানার হিসেবে না এনে বরং হিসেবে আনা হয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর অধিনায়ককে।

আর তৃতীয়বার কোনো দল ৯০ মিনিটের মধ্যে ইনিংস সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে সেই দলের অধিনায়ককে ৩০ লক্ষ রুপি জরিমানা করার পাশাপাশি তাকে এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করা হবে। এছাড়াও ওই দলের সব খেলোয়াড়কে ১২ লক্ষ টাকা বা ম্যাচ ফির ৫০% জরিমানা করা হবে।

এই আসরেই বিরাট আর ডু প্লেসিস ছাড়াও সানজু স্যামসন, লোকেশ রাহুল, হার্দিক পান্ডিয়া ও ডেভিড ওয়ার্নাররাও এই শাস্তির মুখোমুখি হয়েছেন। এই শাস্তির পাশাপাশি ৯০ মিনিট সময়সীমা শেষ হবার পর ৩০ গজ বৃত্তের বাইরে একজন ফিল্ডার কম নিয়ে বাকি ওভার গুলো খেলার নিয়ম তো আছেই।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...