প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ, ইতিহাস গড়ল উগান্ডা!

১৯৯৮ সালে যাদের বাইশ গজের প্রাঙ্গনে পদার্পণ ঘটেছিল, সেই উগান্ডা এবার প্রথমবারের মতো পেল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের টিকিট।

ইতিহাস কিংবা মহোৎসব— ৩০ নভেম্বর দিনটা এখন চিরস্মরণীয় হওয়ার পথে উগান্ডাবাসীদের জন্য। ১৯৯৮ সালে যাদের বাইশ গজের প্রাঙ্গনে পদার্পণ ঘটেছিল, সেই উগান্ডা এবার প্রথমবারের মতো পেল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের টিকিট।

সমীকরণটা সহজই ছিল উগান্ডার জন্য। পয়েন্ট টেবিলের একমাত্র জয় শূন্য দল রুয়ান্ডা। আর সেই রুয়ান্ডাকে হারালেই মিলত বিশ্বকাপের টিকিট। নামিবিয়ার উইন্ডহুকের ওয়ান্ডারার্স ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ রুয়ান্ডাকে ৯ উইকেটে উড়িয়ে দিয়েই ইতিহাস গড়েছে উগান্ডা। 

টসে জিতে এ দিন রুয়ান্ডাকে ব্যাটিং করতে পাঠিয়েছিলেন উগান্ডা অধিনায়ক ব্রায়ান মাসাবা। উগান্ডা বোলারদের তোপে রুয়ান্ডা ১৮.৫ ওভারে গুটিয়ে যায় মাত্র ৬৫ রানেই।

৬৬ রানের লক্ষ্যে উগান্ডাকে তেমন বেগ পেতে হয়নি। ৮.১ ওভারেই জয় নিশ্চিত করে তারা। ২১ বলে ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন সিসাজাই, আর মুকাসা করেন ৮ বলে ১৩ রান। 

এর আগে তিনবার চূড়ান্ত বাছাইপর্ব খেলেছিল উগান্ডা। তবে সেই বাঁধা পেরিয়ে কখনোই দেশটির বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ হয়নি। এবার সেই আক্ষেপ মিটলো তাদের। চতুর্থ দফা এসে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ করে নিল তারা। 

তবে উগান্ডার ইতিহাস গড়ার দিনে কপাল পুড়েছে জিম্বাবুয়ের। আফ্রিকা অঞ্চলের বাছাই পর্ব থেকে বিশ্বকাপের মঞ্চে বরাদ্দ ছিল দুটি জায়গা। আর সেই দৌড়ে নামিবিয়ার পর দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে উগান্ডা। পয়েন্ট তালিকার তিনে থাকায় জিম্বাবুয়েকে তাই আক্ষেপ নিয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে। 

বাছাইপর্বে অবশ্য উগান্ডা আধিপত্য দেখিয়েই বিশ্বকাপে নিজেদের জায়গা নিশ্চিত করেছে। পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা নামিবিয়ার বিপক্ষে ছাড়া সব ম্যাচই জিতেছে তারা। এ যাত্রায় তাদের কাছে হেরেছে জিম্বাবুয়ের মতো দলও। 

প্রসঙ্গত, আসন্ন বছরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রের ১০টি ভেন্যুতে হতে যাওয়া বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো খেলবে ২০টি দল। উগান্ডার মাধ্যমে চূড়ান্ত হয়ে গেছে সেই ২০ দলের স্লটও।

 

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...