ডেকোডিং দ্য মাইডাস টাচ

২০১৩ সালের পর আর কোনো আইসিসি ট্রফি জিততে পারেনি ভারত। ভারতের তথা ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে সফল অধিনায়কদের একজন ধোনি। আইসিসি টুর্নামেন্টগুলোতে ধোনির হাত ধরে আসা সফলতা ধোনির বিদায়ের সাথে সাথেই যেনো হারিয়ে গেছে! তবে ধোনির অধিনায়কত্ব, খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তোলা, উপস্থিত বুদ্ধি এসবকিছু তরুন অধিনায়কদের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবেই কাজ করবে।

মহেন্দ্র সিং ধোনি – এমন একটি নাম যাকে আলাদাভাবে চেনানোর প্রয়োজন নেই। ক্রিকেট দুনিয়ার এক উজ্জ্বল তারকা, ভারতীয় ক্রিকেটের কিংবদন্তি! সর্বকালের সেরা অধিনায়কের তালিকায় করলে উপরের দিকেই থাকবেন ধোনি।

‘ক্যাপ্টেন কুল’ খ্যাত ধোনি ভারতের হয়ে অসংখ্য ম্যাচ জিতেছেন, জিতিয়েছেন। অধিনায়ক হিসেবে ধোনির ট্যাকটিকাল ব্রেইন, বিচক্ষণতা – এসব নিয়ে আলোচনা পুরো বিশ্বজুড়েই। ধোনির দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ভার‍তের হয়ে আছে অসংখ্য অর্জন। জিতেছেন তিনটি আইসিসি ট্রফি!

  • ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

২০০৭ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর ভারতের সামনে হাতছানি তখন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরে সেরাটা দেওয়ার। ওই টুর্নামেন্টে আন্ডারডগ হিসেবেই শুরু করে ভারত। ধোনির নেতৃত্বে সেবার উদ্বোধনী আসরেই সব বাঁধা পেরিয়ে শিরোপা জয় করে ভার‍ত। ফাইনালে পাকিস্তানকে হারিয়ে দুর্দান্ত এক জয় পায় ভারত।

অথচ, সেই বিশ্বকাপের আগে ভারত আলোচনাতেও ছিল না। সিনিয়রদের ছেটে ফেলে নির্বাচকররা একেবারেই তরুণ এক দল গঠন করে বিশ্বকাপের জন্য। আর সেই বিশ্বকাপের নেতা ছিলেন ধোনি। অধিনায়ক ধোনির বীরত্বের শুরু হয় সেখান থেকে।

  • ২০০৮ কমনওয়েলথ ব্যাংক সিরিজ

২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ের পর ভার‍তের জন্য ওয়ানডে ফরম্যাটেও নিজেদের আধিপত্য দেখানোর দরকার ছিলো। অবশ্য শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ওয়ানডেতেও প্রতাপ দেখায় ভার‍ত।

ম্যাথু হেইডেন, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, রিকি পন্টিং, অ্যান্ড্রু সায়মন্ডস, ব্রেট লিদের নিয়ে গড়া শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া দলকে ধোনির নেতৃত্বে সেবার অজিদের মাটিতে পরাজিত করে ভারত! তিন ম্যাচের ফাইনালে ২-০ তে জিতে নেয় ভারত।

  • ২০১১ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ

ধোনির ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা স্মৃতি ২০১১ আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ১৯৮৩ সালের পর আবারও বিশ্বকাপ জয় করে ভারত। টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই শিরোপা জয়ের জন্য ফেবারিট ছিল ধোনির ভার‍ত।

ফাইনালে ধোনির ছক্কাতেই ম্যাচে জয় তুলে নেয় স্বাগতিকরা। ধোনির বিচক্ষণ অধিনায়কত্ব, যুবরাজ সিং ও জহির খানের অনবদ্য পারফরম্যান্সে দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জেতে ভারত। পুরো টুর্নামেন্টে ব্যাট হাতে হাসেনি ধোনির ব্যাট, তবে ফাইনালে প্রমাণ করে ছাড়েন যে, তিনিই সত্যি সেরা ম্যাচ উইনার।

  • ২০১৩ আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি

২০১৩ আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে মোটেও শক্ত অবস্থানে ছিল না ভারত। বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফিতে ঘরের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪-০ তে হার! ভার‍ত তখন কালো ছায়া সরিয়ে ইংল্যান্ডের মাটিতে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে আলো খোঁজার চেষ্টায় মত্ত। অবশ্য ধোনির নেতৃত্বে সব বাঁধা টপকে সেবার ফাইনালে পৌঁছে যায় ভারত। আর বৃষ্টিবিঘ্নিত ফাইনালে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির শিরোপা জেতে ভারত।

২০১৩ সালের পর আর কোনো আইসিসি ট্রফি জিততে পারেনি ভারত। ভারতের তথা ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে সফল অধিনায়কদের একজন ধোনি। আইসিসি টুর্নামেন্টগুলোতে ধোনির হাত ধরে আসা সফলতা ধোনির বিদায়ের সাথে সাথেই যেনো হারিয়ে গেছে! তবে ধোনির অধিনায়কত্ব, খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তোলা, উপস্থিত বুদ্ধি এসবকিছু তরুন অধিনায়কদের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবেই কাজ করবে।

  • আইপিএল

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ইতিহাসের সেরা দু’টি দলের একটি হল চেন্নাই সুপার কিংস। এই দলটির সাথে একদম গোড়া থেকেই আছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ২০১০, ২০১১, ২০১৮ ও ২০২১ – মোট চারবার আইপিএলের শিরোপা জিতে দলটি। আর এর চারটিই এসেছে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...