ইতি, মরগ্যান!

বয়স পয়ত্রিশ পেরিয়ে এখন ছত্রিশের দিকে। ১৬ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ার। শরীরটাও যেন আর সায় দিচ্ছে না। টানা ব্যর্থতায় মানসিক ভাবেও ফেরার ইচ্ছেটা হয়তো হারিয়ে ফেলেছেন এই ইংলিশ তারকা। দলের বাকিরা যেখানে উড়ন্ত ফর্মে, সেখানে প্রতিনিয়ত ব্যাট হাতে ব্যর্থ ইনিংসে শেষে মাথা নুইয়ে মাঠ ছাড়ছেন তিনি।

টানা ব্যর্থতায় এবার যেন হাল ছেড়ে দিচ্ছেন ইংলিশ তারকা ইয়ন মরগ্যান। গুঞ্জন রয়েছে রঙিন পোশাকে ইংল্যান্ডের এই নিয়মিত মুখ এবার ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে যাচ্ছেন। লম্বা সময় ধরেই ব্যাট হাতে নিষ্প্রভ মরগ্যান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কিংবা ফ্র‍্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটেও লম্বা সময় ধরে তিনি ব্যর্থ। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে যেমন ছিলেন সাদামাটা, তেমনি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও (আইপিএল) গেল দুই আসরে ছিলেন চরম ব্যর্থ। এই ব্যর্থতা দিয়েই হয়তো শেষ হতে যাচ্ছে মরগ্যানে রঙিন ক্যারিয়ার।

গুঞ্জন উঠেছে আগামিকাল (মঙ্গলবার) প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন রঙিন পোশাকে ইংল্যান্ডের অন্যতম সফল অধিনায়ক ও সেরা এই তারকা। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সিরিজের আগে প্রেস কনফারেন্সে বলেছিলেন, ‘যখন আমার মনে হবে আমি সেরাটা দিতে পারছি না, দলের জন্য অবদান রাখতে পারছি না, তখনই আমি বিদায় নিব।’

এরপরই পর পর দুই ওয়ানডেতে খর্বশক্তির ডাচদের বিপক্ষে খালি হাতে সাজঘরে ফিরেন মরগ্যান। ছক্কাবৃষ্টি আর রান ফোয়ারার সিরিজে খর্বশক্তির ডাচদের বিপক্ষে ধ্বংসযজ্ঞ চালান ইংলিশ ব্যাটাররা।

দলের বাকিরা যেখানে দেখিয়েছেন দাপট, সেখানে ব্যাট হাতে দুই ম্যাচেই হতাশাজনক পারফরম্যান্স অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যানের। চেনা কন্ডিশনে খর্বশক্তির ডাচদের বিপক্ষে দুই ম্যাচে রানের দেখাই পাননি ইংলিশ অধিনায়ক। দলীয় অর্জনে জয় যুক্ত হলেও মরগ্যানের ব্যক্তিগত অর্জনের খাতায় কালির ছিটেফোঁটাও নেই।

প্রথম ওয়ানডেতে সোনালি হাঁসে নাম লেখানোর পর দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও ফিরেছেন শূন্য রানে। ব্যাট হাতে সময়টা মোটেও ভাল যাচ্ছে না এই ইংলিশ তারকার। বছর খানেক ধরেই ব্যাট হাতে নিষ্প্রভ মরগ্যান। অবশ্য দলের জয়ে মরগ্যানের দুর্দশার চিত্রটা ভাটা পড়ছে নিয়মিতই। সমালোচনা চলছিল বেশ।

অনেকের মতে এই অফ ফর্ম কাটিয়ে ফেরার মত সামর্থ্য আছে এই ইংলিশ অধিনায়কের। কারো কারো মতে অধিনায়কত্ব ছেড়ে শুধু ব্যাটার হিসেবে খেলাটাই তার জন্য উত্তম। অধিনায়কের টুপিটা বেন স্টোকসের মাথায় দেখতে চেয়েছেন অনেকে।

বয়স পয়ত্রিশ পেরিয়ে এখন ছত্রিশের দিকে। ১৬ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ার। শরীরটাও যেন আর সায় দিচ্ছে না। টানা ব্যর্থতায় মানসিক ভাবেও ফেরার ইচ্ছেটা হয়তো হারিয়ে ফেলেছেন এই ইংলিশ তারকা। দলের বাকিরা যেখানে উড়ন্ত ফর্মে, সেখানে প্রতিনিয়ত ব্যাট হাতে ব্যর্থ ইনিংসে শেষে মাথা নুইয়ে মাঠ ছাড়ছেন তিনি।

টি-টোয়েন্টিতে গেল ১৮ ইনিংসে নেই কোনো পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস। গেল আট ওয়ানডেতে ফিফটি মাত্র একটিতে। একের পর এক ব্যর্থ ইনিংস শেষে সমালোচনার বৃত্তে যেন নিজেকে আরও জড়িয়ে ফেলেছেন তিনি।

আর সেই ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরোনোর পথ খুঁজে পাননি এই ইংলিশ তারকা। হতাশ মনে যেন এখন বিদায়ের অপেক্ষা। ইংল্যান্ড ক্রিকেট হয়তো রঙিন পোশাকে দ্রুতই পেতে যাচ্ছে নতুন কোনো অধিনায়কের দেখা।

সব গুঞ্জন সত্যি হলে বিদায় নিবেন মরগ্যান। ইংল্যান্ড ক্রিকেটে রঙিন পোশাকে দু’হাত ভরে দিয়েছেন তিনি। তার হাত ধরেই প্রথমবার বিশ্বকাপ ট্রফি জিতেছে ইংলিশরা। ফর্মের কাছেই শেষ অবধি হার মানতে হচ্ছে রঙিন পোশাকে ইংল্যান্ডের অন্যতম সফল এই অধিনায়ককে।

আয়ারল্যান্ডের হয়ে যাত্রা শুরু করেছিলেন। সেখান থেকে ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে নতুন করে স্বপ্ন দেখা শুরু করলেন। এরপর বদলে গেল ক্যারিয়ারের চিত্র। মরগ্যান বনে গেলেন ইংলিশদের অন্যতম সেরা এক তারকা।

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...