ডোয়াইন লেভেরক ও স্টিভেন টেলর, মাঝে ১৭ বছরের ব্যবধান

ডোয়াইন লেভেরক ও স্টিভেন টেলর - তাঁদের দেখা হওয়া খুব কঠিন। তবুও বিশ্বকাপ মিলিয়ে দিল তাঁদের। আরও ভাল করে বললে, স্লিপে দাঁড়িয়ে নেওয়া ‍দু’টো ক্যাচে এক হয়ে গেলেন তাঁরা।

ডোয়াইন লেভেরক ও স্টিভেন টেলর – তাঁদের দেখা হওয়া খুব কঠিন। তবুও বিশ্বকাপ মিলিয়ে দিল তাঁদের। আরও ভাল করে বললে, স্লিপে দাঁড়িয়ে নেওয়া ‍দু’টো ক্যাচে এক হয়ে গেলেন তাঁরা।

স্টিভেন টেলর, যাকে আমেরিকার ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা ব্যাটার বলা হয়, তিনি স্লিপে দাঁড়িয়ে ডালাসে নিলেন এক দর্শনীয় ক্যাচ। পাকিস্তানের ইনিংসের মাত্র দ্বিতীয় ডেলিভারিতে সাজঘরে ফিরলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান।

বাঁ-হাতি স্পিনার সৌরভ নেত্রাভালকারের গুড লেন্থ ডেলিভারিটা স্যুইং পেয়েছিল একটু দেরি করে। তাতেই কুপোকাত হন মোহাম্মদ রিজওয়ান। ব্যাটের কানায় লেগে বলটা প্রায় বেরই হয়ে যাচ্ছিল, তখনেই নিজের ডান পাশে ডাইভ দেন। আর তাতেই ইতিহাস, চলতি বিশ্বকাপে নি:সন্দেহে এটাই সেরা ক্যাচ।

আর তাতেই ফিরে আসল ২০০৭ সালের সেই ডোয়াইন লেভেরকের স্মৃতি। সেবার ওয়ানডে বিশ্বকাপে, ভারতের বিপক্ষে বারমুডার এই ক্রিকেটার কাম পুলিশের দারোগা নিয়েছিলেন অবিশ্বাস্য এক ক্যাচ। কাকতালীয় ভাবে সেটাও ছিল ভারতের ইনিংসের দ্বিতীয় ওভার। ব্যাটিং প্রান্তে তখন রবিন উথাপ্পা। বারমুডার হয়ে বোলিংয়ে তখন মালাচি জোনস।

জোনসের অফস্ট্যাম্পের বাইরের এক বল উথাপ্পার ব্যাটে লেগে বের হয়ে যাওয়ার সময় ঝাপ দেন ১২৭ কেজি ওজনের লেভেরক। বাকিটা ইতিহাস! ক্রিকেটের ইতিহাসেই এমন দর্শনীয় দৃশ্য আছে খুব কম। কে বলবে এই মানুষটার বয়স তখন ৩৫, আর ফিটনেসের বালাই যে নেই তা তো বললেই চলে!

বারমুডার সেদিনটা ফেরত আনল যুক্তরাষ্ট্র। স্টিভেন টেলরের সৌজন্যে। আমেরিকার বুকে ফিরে আসল ১৭ বছর আগের পোর্ট অব স্পেন। অবিকল একই দৃশ্য!

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
মন্তব্যসমূহ
Loading...